মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারের ইতিকথা

    মহুয়া মালুয়ার স্মৃতি বিজড়িত ব্রহ্মপুত্র নদের তীর ঘেঁষে ১৭৯২খ্রিঃ অবিভক্ত বাংলায় ময়মনসিংহ কারাগারের যাত্রা শুরম্ন হয়। এই কারাগারে বাংলাদেশে প্রথম জেল সুপার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ডবিস্নউ এ চৌধুরী। যতদূর জানা যায় বর্তমান জামালপুর, শেরপুর, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ এবং টাংগাইল জেলার একমাত্র কারাগার ছিল ময়মনসিংহ কারাগার। ১৮০০ খ্রিস্টাব্দের প্রথম ভাগে একমাত্র ময়মনসিংহ কারাগারেই মহিলা বন্দীদের কারাগারের বাইরে পৃথকভাবে অমত্মরীন রাখা হত। বাংলা ১৩৩৯ সালে প্রলয়ংকারী ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে কারাভ্যমত্মরে সকল বন্দী ওয়ার্ডের টিনের চাল লন্ডভন্ড হয়ে যায় এবং জনশ্রম্নতি আছে ঘুর্ণিঝড়ে ২০০ বন্দী মৃত্যুবরণ করে। এর পরেই বন্দী ওয়ার্ডগুলোকে পাকা করা হয়। স্বাধীনতাত্তোর বাংলাদেশে ময়মনসিংহ জেলা কারাগারটি বাংলাদেশের বৃহত্তম কারাগারগুলোর মধ্যে অন্যতম কারাগার হিসেবে পরিচিত। এই জেলা কারাগারের অধীনে ০৪টি মহকুমা কারাগার (সাব-জেল) ছিল। পরবর্তীতে ১৯৯৭ সালে ময়মনসিংহ জেলা কারাগারকে কেন্দ্রীয় কারাগারে উন্নীত করা হয়। বর্তমানে এই কারাগরের ধারন ক্ষমতা পুরম্নষ- ৯৭৩ জন ও মহিলা- ২৩ জন মোট- ৯৯৬ জন।

ছবি

defaultpic.jpg defaultpic.jpg



Share with :

Facebook Twitter